বিয়ে আপনার, দায়িত্ব আমাদের

Landing page down arrow
WhatsApp Logo

কিভাবে আপনি জীবনসঙ্গী খুঁজবেন?

  • tick markরেজিস্টার করুন নিজের বা পরিচিতজনের জন্য
  • tick markআপনার সকল তথ্য দিন
  • tick markসবগুলো ঘর ভালোভাবে পূরণ করুন
  • tick markকার্ড বা বিকাশে পে করুন
  • tick markপাত্র/পাত্রী খুঁজুন
  • tick markসম্পূর্ণ বায়োডাটা দেখার অনুরোধ করুন
  • tick markযোগাযোগের অনুরোধ করুন
  • tick markমেসেজ পাঠান
  • tick markদেখা করুন এবং বিয়ের সিদ্ধান্ত নিন

আমাদের সেবাসমূহ

Our-Services-icon-1-logo

সপ্তাহে ৭ দিন গ্রাহক সেবা

আমরা সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৬ টা পর্যন্ত গ্রাহক সেবা দিয়ে থাকি। আমাদের সাথে আপনারা ইমেইল, ফোন অথবা ফেসবুক মেসেঞ্জারের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। আমরা চেষ্টা করি সকল সমস্যার সহজ এবং দ্রুত সমাধান করতে।

Our-Services-icon-2-logo

বিশেষ পরামর্শ

আমরা গ্রাহকদের আরও সুন্দরভাবে কিভাবে প্রোফাইলটি উপস্থাপন করতে পারে সে ব্যাপারে পরামর্শ দিয়ে থাকি। প্রিমিয়াম গ্রাহকদের চাহিদা সাপেক্ষে তাদের পছন্দের পাত্র বা পাত্রী খুঁজতে সাহায্য করে থাকি।

Our-Services-icon-3-logo

ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে সহযোগীতা

আমাদের ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে গ্রাহক আমাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন। যেকোনো ধরণের সমস্যা অথবা যেকোনো ধরনের প্রশ্নের উত্তর আমরা দিয়ে থাকি। এছাড়াও আমরা ফেসবুক পেইজে কিছু পাত্র বা পাত্রীর নিজের সম্পর্কে কিছু কথা পোস্ট করে থাকি।

Our-Services-icon-4-logo

গোপনীয়তা ও বিশ্বস্ততার নিশ্চয়তা

আপনার অনুমতি ছাড়া ছবি, আসল নাম ও পূর্ণ প্রোফাইল কেউ দেখতে পারবে না। দুই ধাপে অনুমতি দেয়ার পরে গ্রাহক আপনার যোগাযোগের তথ্য পাবে। আমরা প্রত্যেকের মোবাইল নম্বর ভেরিফাই করি। আপনার অভিযোগ বা সন্দেহজনক তথ্য পেলে নিয়ম অনুযায়ী পদক্ষেপ নেই।

আপনার প্ল্যান নির্বাচন করুন

সুবিধাসমূহ

মেয়াদ
প্রযোজ্য নয়
শর্ট প্রোফাইল দেখুন
Tick icon
বায়োডাটার অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ প্রেরণ
Cross icon
বায়োডাটার অনুরোধ প্রেরণ
Cross icon
বায়োডাটা ডাউনলোড
Cross icon
সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপন
Cross icon
বিশেষজ্ঞ সেবা (চাহিদা সাপেক্ষে)
Cross icon
সুপারিশ (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon

সুবিধাসমূহ

মেয়াদ
১ মাস
শর্ট প্রোফাইল দেখুন
Tick icon
বায়োডাটার অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ প্রেরণ
২৫
বায়োডাটার অনুরোধ প্রেরণ
ইচ্ছেমতো
বায়োডাটা ডাউনলোড
Tick icon
সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপন
Tick icon
বিশেষজ্ঞ সেবা (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon
সুপারিশ (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon

সুবিধাসমূহ

মেয়াদ
৩ মাস
শর্ট প্রোফাইল দেখুন
Tick icon
বায়োডাটার অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ প্রেরণ
৬০
বায়োডাটার অনুরোধ প্রেরণ
ইচ্ছেমতো
বায়োডাটা ডাউনলোড
Tick icon
সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপন
Tick icon
বিশেষজ্ঞ সেবা (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon
সুপারিশ (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon

সুবিধাসমূহ

মেয়াদ
৫ মাস
শর্ট প্রোফাইল দেখুন
Tick icon
বায়োডাটার অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ গ্রহণ
Tick icon
যোগাযোগের অনুরোধ প্রেরণ
৯০
বায়োডাটার অনুরোধ প্রেরণ
ইচ্ছেমতো
বায়োডাটা ডাউনলোড
Tick icon
সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপন
Tick icon
বিশেষজ্ঞ সেবা (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon
সুপারিশ (চাহিদা সাপেক্ষে)
Tick icon
* অফার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত চলবে

ব্লগ

আল্লাহর কাছে বিধবার চাওয়া

blog-image-1
মানুষের মনের অবস্থা মহান আল্লাহ জানেন। যারা বিধবা হয় বা তালাকপপ্রাপ্তা হন এবং তারা নিজেকে খুব অসহায় মনে করেন। বিশেষ করে যেসব বিধবার সন্তান আছে। সন্তানসহ বিধবাকে অনেক সময়েই পুরুষরা বিয়ে করতে চান না। যদি এসব মহিলারা আল্লাহর উপর ভরসা করতে পারেন, সবর করেন, আল্লাহ্‌ চাইলে তাদের মনের আশা পূরণ হবে। আল্লাহর কাছে বিধবার চাওয়া   আল্লাহ তা’আলা বলেন, আর যে ব্যক্তি আল্লাহর উপর নির্ভর করবে, তার জন্য তিনিই যথেষ্ট হবেন। নিশ্চয় আল্লাহ তাঁর (আল্লাহ্‌র) ইচ্ছা পূরণ করবেনই। আয়াত ৩, সূরা, ত্বালাক আল্লাহর ওয়াদার উপর বিশ্বাস থাকলে অবশ্যই মহান আল্লাহ তাকে নিরাশ করেন না। এই বিষয়ের উপর রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর যামানার একটি ঘটনা বর্ণনা করছিঃ উম্মে সালামা (রাঃ) এর প্রথম বিয়ে হয়েছিল রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর সাহাবা আবু সালামা (রাঃ) এর সাথে। উম্মে সালামা (রাঃ) এর সাথে তার স্বামী আবু সালামা (রাঃ) এর গভীর ভালবাসা ছিল। ইন্তেকালের পরেও যেন একে-অপরকে জান্নাতে স্বামী-স্ত্রী হিসাবে পায় এই জন্য উম্মে ছালামা (রাঃ) একদিন তার স্বামীকে বলেছিলেন, আমি যদি আগে ইন্তেকাল করি, আপনি কি অন্য কোন মেয়েকে বিয়ে করবেন? উত্তরে তার স্বামী বলছিলেন, না, তুমি আগে ইন্তেকাল করলে আমি আর বিয়ে করবো না। তবে আমি তোমার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করি যদি আমি আগে ইন্তেকাল করি তাহলে আল্লাহ যেন তোমাকে আমার চাইতে ভাল স্বামী ব্যবস্থা করে দেয়। আবু ছালামা (রাঃ) কোন একদিন রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর কাছে বিপদে পড়লে কি দোয়া পড়তে হবে তা শিখে এসে নিজের স্ত্রীকে শিক্ষা দিলেন যে, কেউ যদি বিপদে পড়ে তখন যদি এই দোয়া পড়ে তবে নিশ্চই তার মনের আশা আল্লাহ পুরণ করে দিবেন।  দোয়াটি হলঃ اِنَّا لِلّهِ وَ اِنَّا اِلَيْهِ رَاجِعْوْنَ – اَللَّهُمَّ أجُرْنِيْ فِيْ مُصِيْبَتِيْ وَ أَخْلِفْ لِيْ خَيْراً مِّنْهَا “ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। আল্লাহুম্মা আজিরনি ফি মুসিবাতি ওয়াখলিফলি খাইরামমিনহা।” অর্থঃ নিশ্চয় আমরা সবাই আল্লাহর জন্য। এবং আমরা তারই দিকে ফিরে যাব। হে আল্লাহ! আমাকে আমার এ বিপদে পুরস্কৃত করুন।  এবং এর চেয়ে উত্তম বস্তু বিনিময়ে দান করুন। এর কয়েক বছর পরে ওহুদের যুদ্ধে আবু সালামা (রাঃ) আহত হয়ে মদীনার ফিরে আসেন এবং ইন্তেকাল করেন। উম্মে সালামা (রাঃ) অনেক পবিত্র এবং আত্মসম্মানবোধ মহিলা ছিলেন। তিনি স্বামীকে অনেক ভালবাসতেন। স্বামীর জন্য কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে উঠলেন। এরপরে কি হবে? তার আবার সন্তান আছে। কাকে এখন বিয়ে করবেন? নাকি একাই বাকী জীবন কাটিয়ে দিবেন? কে হবেন তার স্বামীর বদলা— এসব চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খেতে লাগলো। কারণ অন্য কাউকে তিনি তার স্বামী আবু সালামার প্রতিস্থাপন মনে করতে পারছিলেন না। বিপদে পড়লে যে দোয়া পড়তে হয়, স্বামীর শিখানো সেই দোয়া তখন মনে পড়ে গেল। উনি দোয়া করলেন আল্লাহর কাছে। “হে আল্লাহ এই বিপদে আমাকে উত্তম পুরস্কার দান করুন এবং আমাকে উৎকৃষ্টতর বদলা দান করুন।” দোয়ার অর্থ অনুযায়ী আল্লাহ তাকে উনার পুর্বের স্বামীর চাইতে ভাল স্বামী দান করবেন। তবে তিনি মনে মনে ভাবলেন, আবু সালামার চাইতেও ভালো আর কেইবা হতে পারে! তবুও তিনি আল্লাহর প্রতি ভরসা রেখে সবর এর সিদ্ধান্ত নিলেন। ইদ্দতকাল পূর্ণ হওয়ার পরে প্রস্তাব আসলো আবু বকর (রাঃ) এর পক্ষ থেকে। আবু বকর (রাঃ) একজন প্রসিদ্ধ ধনী লোক এবং রাসুলুল্লাহ (সাঃ) সবচাইতে কাছের ব্যক্তি ছিলেন। কিন্তু  উম্মে সালামা (রাঃ) রাজি হলেননা।  এরপরে প্রস্তাব এল ওমর (রাঃ) এর পক্ষ থেকে। তিনি রাজি হলেননা। সবাই তার সিদ্ধান্তে অবাক হয়ে গেলেন। উম্মে সালামা (রাঃ) আসলে কি চাচ্ছেন? নিজের দোয়ার প্রতি অর্থাৎ আল্লাহর প্রতি এত বেশি ভরসা ছিল তার যে তিনি জানতেন নিশ্চয় আল্লাহর ওয়াদা সত্য। তিনি ভাবলেন আল্লাহ তাআলা তাকে তার পূর্বের স্বামীর চাইতে অবশ্যই ভাল কাউকে দিবেন। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন উম্মে সালামা (রাঃ) এর এই আস্থার প্রতিদান দিলেন। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) একদিন তাকে বিয়ের প্রস্তাব পাঠালেন। তিনি তখন জানালনে যে,  এটাতো আমার জন্য বড়ই সৌভাগ্যের কথা। কিন্তু প্রথমত আমি ঈর্ষাপরায়ণ। (তিনি এখানে সম্ববতঃ রাসুল (সাঃ) এর অন্যান্য স্ত্রীদের ব্যাপারে ইঙ্গিত দেন।)  দ্বিতীয়ত আমি একজন বয়স্কা নারী। তৃতীয়ত আমার সন্তান আছে। তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উত্তরে জানালেন যে, আমি দোয়া করি আল্লাহ তাআলা তার  ঈর্ষাপরায়ণতা দূর করে দিবেন। আর বয়স আমারওতো কম নয়।  তার  সন্তান যেন আমারই সন্তান হবে। আল-হামদুলিল্লাহ এরপরে উনাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। উম্মে সালামা (রাঃ) খুশিতে মহান আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করেন। তিনি স্বীকার করতেন যে এটা ছিল তার দোয়ার উপহার। অর্থাৎ দোয়ার বিনিময়ে তিনি রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর স্ত্রী হতে পেরেছেন।। আমরাও যদি এভাবে আল্লাহর উপর ভরসা করতে পারি, তাহলে আল্লাহতালা আমাদেরও মনের নেক আশা পূরণ করে দিবেন। লেখকঃ মোহাম্মদ আল-আমিন দেলোয়ার, বিজিনেস এক্সিকিউটিভ, বিয়েটা ডট কম

বিয়ে আপনার, দায়িত্ব আমাদের

blog-image-2
বিয়েটা ডট কমে বর্তমানে (১৫-০৫-২০২৩) পর্যন্ত মোট ইউজার ১ লাখ ১ হাজার ৪৬৩ জন। পাত্র ৬৯,০৩৩ জন এবং পাত্রী ২৮,১৫৬ জন। এর মধ্যে মুসলিম পাত্রী ৭৮৭৪ জন, মুসলিম পাত্র ২৬,৪৩৯ জন। হিন্দু পাত্র ২,৬০৭ জন, হিন্দু পাত্রী ৭৩৫ জন, এছাড়া অন্যান্য ধর্মের পাত্র/পাত্রী রয়েছে। এর মধ্যে অনেকের বিয়ে গেছে, অনেকেই আগ্রহী নয় তাদের প্রোফাইল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশসহ পৃথিবীর প্রায় ৬৬ টি দেশ থেকে আমাদের ওয়েবসাইটে বিয়ের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন। তাই দেশে এবং বিদেশে সব জায়গাতেই বিয়ের করার সহজ সুযোগ রয়েছে এই বিয়েটা ডট কম থেকে।   বিয়ের জন্য রেজিস্ট্রেশন এর সময় নিজের পছন্দ এবং বায়োডাটা উল্লেখ করতে হয়। পছন্দ অনুযায়ী পাত্র-পাত্রীর প্রোফাইল দেখতে পাওয়া যায় ফ্রি ইউজার হিসাবে। ফ্রি ইউজার হিসাবে কেউ অনুরোধ পাঠালে অনুরোধ গ্রহণ বা রিজেক্ট করা যায়।    কাউকে পছন্দ হলে পেইড ইউজার অর্থাৎ যেকোন প্ল্যান কিনে অনুরোধ পাঠাতে হয়। অনুরোধ  পাঠানোর পরে যদি অনুরোধ গৃহীত হয় তাহলে ফোন নাম্বার, ঠিকানা পাওয়া যায়। পরস্পরে কথা বলে, দেখা সাক্ষাৎ করে পারিবারিকভাবে বিয়ে করবেন।  আপনার এই প্রসেসের মধ্যে সাহায্য লাগলে প্রস্তুত রয়েছে বিয়েটা টিম।  যেকোন একটি প্ল্যান আপগ্রেড করার পরে ইচ্ছামত বায়োডাটা দেখার  অনুরোধ পাঠাতে হবে। কারণ বায়োডাটা দেখার অনুরোধ ইচ্ছেমত পাঠানো যায়। এরপরে অপেক্ষা করতে হবে। যারা অনুরোধ গ্রহণ করবে তাদের মধ্যে যাদেরকে বেশি পছন্দ তাদেরকে যোগাযোগের অনুরোধ পাঠাবেন। সাত দিনের মধ্যে যোগাযোগের অনুরোধ গৃহীত হলে মোবাইল নাম্বার, পরিপূর্ণ ঠিকানা ও মেসেজ করার অপশন পাবেন। আর অনুরোধ সাত দিনের মধ্যে গ্রহণ না করলে অনুরোধটি ফেরত আসবে যা দিয়ে অন্য একজনকে অনুরোধ পাঠাবেন।   মোবাইল নাম্বার ও পরিপূর্ণ ঠিকানা পাওয়ার পরে কথা বলবেন এবং ঠিকানায় খোঁজ খবর নিবেন। যদি কোন সন্দেহ হয় আমাদেরকে জানাবেন। আর কথা বলে ঠিকানাতে খোঁজ খবর নিয়ে উভয়ের  পছন্দ হলে পারিবারিকভাবে বিয়ে করবেন। আল-হামদুলিল্লাহ এভাবে অনেক বিয়েই সম্পাদিত হয়েছে।   বিয়েটা ডট কমের কাজ কি? বিয়েটা ডট কম থেকে আপনি বিয়ের ব্যাপারে পরিপূর্ণ সহযোগিতা পাবেন। যেমন, কারো সাথে কথাবার্তা চলাকালীন যদি প্রয়োজন মনে করেন আমরা আপনার পক্ষ হয়ে কথা বলবো। কাউকে অনুরোধ পাঠিয়েছেন অথচ উনি অনুরোধ গ্রহণ করছেন না— আমাদেরকে জানালে আমরা তাকে কল দিয়ে অনুরোধ গ্রহণ করতে বলবো। আপনার পছন্দমত পাত্রীর বায়োডাটার লিংক আপনাকে দিব এবং কথা বলে দ্রুত বিয়ের জন্য চেস্টা করবো।   সবশেষ আমরা আমাদের ইউজারদেরকে যা বলি, আপনার চেষ্টার মুল্যায়ন হবেই। বিয়েটার মাধ্যমেই হোক বা অন্য কোনভাবেই হোক। আপনি যেমন বিয়ের জন্য চেস্টা করবেন তেমন পাবেন। বিয়ে আপনার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ  বিষয়। অবহেলা করবেননা, বিনা শ্রমে ভাল কিছু সাধারণত পাওয়া যায়না। বিয়ের জন্য জীবনসঙ্গী খোঁজা কোন খরচ নয় বরং বিনিয়োগ। বিয়ের পুর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত আমরা বিয়েটার হেল্পলাইন আপনার সাথে আছি। নিঃসংকচে আমাদেরকে কল করুন, মেসেজ দিন ও সমস্যা  জানান। আমরা আপনাকে বিয়ের ব্যাপারে সাহায্য করবো ইনশাআল্লাহ।