বিয়েটা ব্লগ

পেমেন্ট করলেই দায়িত্ব শেষ নয়

পেমেন্ট করলেই দায়িত্ব শেষ নয়

আমাদের সাইটে অনেকেই আছেন পেমেন্ট করলেই তাদের দায়িত্ব শেষ মনে করে। আপনাকেই যোগাযোগ করতে হবে কারন পেমেন্ট করলেই দায়িত্ব শেষ নয়।

শেয়ার করুন
বিয়ের জন্য বিনিয়োগ বা পেমেন্ট এর গুরুত্ব

বিয়ের জন্য বিনিয়োগ বা পেমেন্ট এর গুরুত্ব

বিয়ের জন্য বিনিয়োগ বা পেমেন্ট এর গুরুত্ব। আমরা অনেকেই পেমেন্ট করাকে গুরুত্ব দিতে চাই না, কারণ আমরা মনে করি আমি কেন আরেকজনকে পেমেন্ট করে  অনুরোধ পাঠাবো। বরং আমাকে অনুরোধ পাঠাবে। এই আশা নিয়ে বসে থাকি। ফলে কিছু অনুরোধ আসে কিন্তু কখন, কার কাছে থেকে আসবে তার কোন ঠিক থাকে না। তাই বিয়ের জন্য বিনিয়োগ বা পেমেন্ট এর গুরুত্বপূর্ণ। 

শেয়ার করুন
বিয়েটা সার্ভিস সম্পর্কে জানতে চাই

বিয়েটা সার্ভিস সম্পর্কে জানতে চাই

যারা বিয়ের জন্য আগ্রহী তারাই শুধু বিয়েটাতে রেজিস্ট্রেশন করবেন। তবে আপনি চাইলে আপনার ভাই এর জন্য, বোনের জন্য, সন্তানের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

শেয়ার করুন
বিয়েটাতে অনুমতি ছাড়া নাম্বার পাওয়া যায় না

বিয়েটাতে অনুমতি ছাড়া নাম্বার পাওয়া যায় না

আমাদের ওয়েবসাইটে পাত্র-পাত্রীর কাছে প্রথমে বায়োডাটা দেখার জন্য একটি অনুরোধ পাঠাতে হয়। মনে করুন আপনি পাত্র। কোন পাত্রীর সংক্ষিপ্ত প্রোফাইল আপনার পছন্দ হল। আপনি প্ল্যান আপগ্রেড করে ঐ পাত্রীর সম্পূর্ণ প্রোফাইল দেখার জন্য অনুরোধ পাঠালেন। এরপরে পাত্রী পক্ষ আপনার প্রোফাইল দেখে পছন্দ হলে অনুরোধ গ্রহণ করবেন এবং আপনাকে সম্পূর্ণ বায়ো-ডাটা দেখার অনুমতি দিবেন।  তখন আপনি তাঁর বিস্তারিত দেখতে পারবেন এবং যোগাযোগের জন্য অনুরোধ পাঠাতে পারবেন।  এই অনুরোধ পাঠানোর পরে ৭ দিনের মধ্যে পাত্রী পক্ষ যোগাযোগের অনুরোধ গ্রহণ করলে আপনি তাদের ফোন নাম্বার, ঠিকানা, মেইল করার সুযোগ ইত্যাদি পাবেন। 

শেয়ার করুন
আনোয়ার হোসেন এবং শায়লা হামিদ মৌ এর বিয়ে

আনোয়ার হোসেন এবং শায়লা হামিদ মৌ এর বিয়ে

তাঁরা এখন বিবাহিত দম্পত্তি। সুখেই আছেন বলে জানিয়েছেন আমাদেরকে। আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিয়ে হওয়াতে আমাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।  
আনোয়ারের বিয়েটা সম্পর্কে বক্তব্যঃ “I am thankful to Biyeta as I found my life partner through this site” 

শেয়ার করুন
দ্রুত বিয়ে করার উপায়

দ্রুত বিয়ে করার উপায়

আমাদের কিছু পরামর্শ তাদের জন্য যারা বিয়েটা’র মাধ্যমে দ্রুত বিয়ে করতে চান। অনেকেই জানতে চান যে আমাদের মাধ্যমে কত জনের বিয়ে হয়েছে। আজ পর্যন্ত (০৩-০৪-২০২২) বিয়েটার সব মিলিয়ে মোট ইউজার ৮৯৩৩২ জন। আর এই বিরাট পরিবারের কে যে কখন বিয়ে করছে তা যদি ফিডব্যাকে উল্লেখ না করেন তাহলে জানা সম্ভব নয়। তবে ফিডব্যাকে উল্লেখ করলে আমরা তাদের সাথে যোগাযোগ করে উপহার দেই। অনেকেই এই উপহার পেয়েছেন। তবে সবার সাথে যোগাযোগ করে উপহার দেওয়া সম্ভব হয়নি। গত বছর অর্থাৎ ২০২১ সালে ৮৯ টি বিয়ে বিয়েটার মাধ্যেম বিয়ে হয়েছে বলে ইউজাররা ফিডব্যাকে উল্লেখ করেছেন।

শেয়ার করুন
বিয়েটা ডট কমে পাত্র-পাত্রীর ফোন নাম্বার পেতে একটু বেশি সময় লাগে

বিয়েটা ডট কমে পাত্র-পাত্রীর ফোন নাম্বার পেতে একটু বেশি সময় লাগে

আমাদের বিয়েটা ডট কমের ইউজারদের একটি গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ এই কথাটি। আমরাও স্বীকার করছি। কারণ প্রথমে সম্পূর্ন বায়ো-ডাটা দেখার অনুরোধ, পরে যোগাযোগের অনুরোধ অর্থাৎ ২ টি অনুরোধ গৃহীত হলে এই ফোন নাম্বার, ঠিকানা পাওয়া যায়। আর এতে অনেক সময় লেগে যায়।

শেয়ার করুন
বিয়েটা ডটকম বনাম ঘটক

বিয়েটা ডটকম বনাম ঘটক

বিয়ের খুব জনপ্রিয় এবং প্রাচীন প্রদ্ধতি হল ঘটকের দ্বারা বিয়ের জন্য পাত্র-পাত্রীর সন্ধান করা। ঘটক সাহেবের কাছে একসময় মানুষ তাদের সন্তানের জন্য কখনও নিজের বিয়ের জন্য পাত্র/ পাত্রীর দারস্থ হতেন। ঘটক সাহেবরা এই মহান কাজকে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির আশায় আনন্দের সাথে করতেন। বিয়ে সংঘটিত হলে বর পক্ষ বা কনে পক্ষ কখনো উভয় পক্ষ ঘটক সাহেবকে সম্মানিত করতেন।

শেয়ার করুন
বিয়েটা হেল্পলাইনের কাজ কী?

বিয়েটা হেল্পলাইনের কাজ কী?

বিয়েটা ডট কমে রেজিস্ট্রেশন এর পরে সাধারণত নিজেই নিজের পছন্দের মানুষকে প্ল্যান আপগ্রেড করে অনুরোধ পাঠাতে হয়। আর অপর পক্ষ যখন নিজেই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রোফাইল দেখে প্রথম অনুরোধটি অর্থাৎ বায়ো-ডাটা দেখার অনুরোধ গ্রহণ করে তখন যোগাযোগের অনুরোধ পাঠাতে হয়। আর যোগাযোগের অনুরোধ পাঠানোর পরে ৭ দিনের মধ্যে অপর পক্ষ যদি অনুরোধটি গ্রহণ করে তাহলে ফোন নাম্বার, ঠিকানা এবং মেসেজ পাঠানোর অনুমোদন পাওয়া যায়। 

শেয়ার করুন
বিয়েটাকে ব্যবহার করে বিয়ে এবং কিছু পরামর্শ

বিয়েটাকে ব্যবহার করে বিয়ে এবং কিছু পরামর্শ

বিয়েটা ডট কমে অনেক আগ্রহ নিয়ে রেজিস্ট্রেশন করার পর মনমত কোন রেস্পন্স না পেয়ে অনেকেই আর প্রোফাইলে লগইন করেন না। আর নিজে নিজে মন্তব্য করেন যে, খুঁজে পেলাম না আমার পছন্দমত কোন পাত্র বা পাত্রীকে। অথচ বন্ধু বা বান্ধবীদের কাছে অনেক সুনাম শুনে তারা বিয়েটাতে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন বা পেমেন্ট করেছিলেন কিন্তু সঠিক নির্দেশনা না পাওয়ার কারণে তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন।

শেয়ার করুন